সফল নারী উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠায় পুরুষের সহযোগিতা অপরিহার্য

সফল নারী উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠায় পুরুষের সহযোগিতা অপরিহার্য

নারী উদ্যোক্তা
নারী উদ্যোক্তাদের সফল করে তুলতে পুরুষের সহযোগিতা অপরিহার্য বলে মত দিয়েছেন বিশিষ্টজনেরা। তাদের মতে, শুধু পরিবার নয়, সমাজ ও রাষ্ট্র গঠনেও নারী-পুরুষ পরস্পরের পরিপূরক। পারস্পরিক সহযোগিতামূলক দৃষ্টিভঙ্গি ছাড়া একজন নারী যেমন তার কর্মমুখী উদ্যোগে সফল হতে পারেন না, একইভাবে নারীর সহায়ক ভূমিকা ছাড়া পুরুষেরাও প্রতিষ্ঠা পেতে পারেন না। আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ‘উইমেন এন্টারপ্রেনার্স অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ’ (ডব্লিউইএ)-এর উদ্যোগে গতকাল রবিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) আয়োজিত এক গোলটেবিল আলোচনায় তারা এই অভিমত ব্যক্ত করেন।
আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে লেখক ও রাজনীতিক সাহিদুর রহমান ট্যাপা বলেন, একথা অস্বীকারের সুযোগ নেই যে-আমাদের সমাজ ব্যবস্থা এখনও পুরুষতান্ত্রিক। এরকম বাস্তবতায় নারীদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার পথ অনেক বন্ধুর। পদে পদে প্রতিবন্ধকতা ঠেলে ঠেলে নারীদের সামনে হাঁটতে হচ্ছে। তারপরেও আশার কথা, এক ধরনের রক্ষণশীল সমাজ ব্যবস্থার মধ্যেও দেশ স্বাধীনের পর থেকে এ পর্যন্ত নারীরা বহুপথ অতিক্রম করতে সক্ষম হয়েছেন, সমাজের প্রায় প্রতিটি খাতেই নারীরা সক্ষমতার প্রমাণ রেখেছেন।
রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী ও সাবেক সরকারি কর্মকর্তা নাজনিন সুলতানা লাকি বলেন, ‘পৃথিবীতে যা কিছু কল্যাণকর, অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর’- শাশ্বত এ কথাতেই নারী-পুরুষের সমতার বাণী নিহিত। এই সমতা আনতে হলে একেকজন নারীকে একেকজন উদ্যোক্তা হয়ে গড়ে উঠতে হবে। আর এই উদ্যোগে সফলতা অর্জনে অবশ্যই পুরুষটির পাশে থাকা বাঞ্ছনীয়। আলোচনায় সভাপতিত্বকারী ও ডব্লিউইএ’র প্রেসিডেন্ট নাসরিন রুবা বলেন, আমরা সমতায় বিশ্বাসী। আমরা মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, চিকিত্সক, অভিনেত্রী, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক যাই হই না কেন, আমরাই কারও না কারও মা, খালা, বোন, শাশুড়ি, কিংবা প্রতিবেশি। কিন্তু আমাদের চিন্তা-ভাবনাগুলো প্রায় একইরকম। প্রধানমন্ত্রী, বিরোধী দলীয় নেতা, সংসদের স্পিকার, বিচার বিভাগ, সচিবালয় থেকে শুরু করে নারীরা এখন সমাজের প্রায় সব বিভাগেই কাজ করছেন। যেখানেই সুযোগ হচ্ছে, সেখানেই নারীরা যোগ্যতা প্রমাণ করছেন, সবাই কম-বেশি তাদের প্রতিভার স্বাক্ষর রাখছেন। এই সংখ্যাটা আমাদের বাড়াতে হবে। এর মাধ্যমেই সমাজে সমতা আনা সম্ভব। আর সমতা আনয়নের জন্য আমাদের বেশি করে নারী উদ্যোক্তা তৈরি করতে হবে। সেই উদ্যোগকে সফল করতে পুরুষদেরকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।
ডব্লিউইএ’র ভাইস-প্রেসিডেন্ট নাদিয়া বিনতে আমিন তার বক্তব্যে বলেন, নারীরা এখন দেশের অথনৈতিক অগ্রগতিতে অন্যতম অনুঘটক হিসেবে ভূমিকা রাখছেন। শিক্ষা, কৃষি ও শিল্পের উন্নয়ন এবং দারিদ্র্য বিমোচনে নারীদের অবদান অসামান্য। বিভিন্ন উদ্যোগে নারীরা যদি প্রতিবন্ধকতার শিকার না হতেন, তাহলে উন্নয়নের পথে আমরা আরেক ধাপ সামনে এগোতে পারতাম।
তিনি বলেন, নারী এখন আর বোঝা নয়। বরং নারীরা এখন উন্নয়নের অংশীদার। নারীরা আত্মনির্ভরশীল হতে চায়, ঘরের পুরুষটির উপর বোঝা হয়ে থাকতে চায় না। আত্মনির্ভরশীল হওয়ার জন্য সব খাতেই নারীদের উদ্যোক্তা হিসেবে সামনে আসতে হবে। আর এতে অবশ্যই পুরুষের সহযোগিতা অপরিহার্য। গোলটেবিল আলোচনায় অতিথির বক্তব্যে দৈনিক ইত্তেফাকের জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক শামছুদ্দীন আহমেদ বলেন, নারী-পুরুষের পার্থক্য প্রাকৃতিক। তবে সমাজে, রাষ্ট্রে ও বৈশ্বিক পরিমন্ডলে আমাদের প্রত্যেকের প্রধান পরিচয় মানুষ হিসাবে। সমাজকে বদলে দিতে হলে এবং সকল ক্ষেত্রে সমতা আনতে হলে নারীদেরও নিজেদেরকে মানুষ হিসাবে ভাবতে শিখতে হবে।

 

For You, With You, For Ever…. 

সমাহার ডট নেট-এর  পণ্য সামগ্রী ও সেবা পেতে রিসেলার, সেলার সেন্টারে সরাসরি যোগাযোগ করুন।

  • অ্যাপ, সফটওয়্যার, ওয়েবসাইট, ডিজিটাল মার্কেটিং ও ডোমেইন হোস্টিং রেজিস্টেশন করা হয়।
  • নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী, ফ্যাশন, পারফিউম, মেডিসিন, মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ফ্রিজ, টিভি, ক্যামেরা, মোটরবাইক, আসবাবপত্র, এপার্টমেন্ট, বাণিজ্যিক এবং আবাসিক প্রপাটির পাশাপাশি জমি ও প্লট সুলভ মূল্যে বিক্রি করা হয়। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ ভোক্তাদের জন্য নিবেদিত বিভিন্ন রকমের সার্ভিসগুলো দেয়া হয়।
  • আমাদের রিসেলার হয়ে অবসর সময়ে বিনিয়োগ ছাড়া, দৈনিক শুধু ৩-৪ ঘন্টা সময় দিয়ে নিশ্চিত পেসিভ ইনকাম করুন। ৬/৭ মাস নিয়মিত সময় দিলে অবশ্যই মাসিক ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকা ইনকামের নিশ্চয়তা রয়েছে।
  • আকর্ষণীয় কমিশনে ডিলার, এজেন্ট ও সেলার সেন্টার দেয়া হচ্ছে…

এছাড়াও আপনি আপনার ব্যবসার জন্য ট্রেডিশনাল মার্কেটিং অথাৎ সরাসরি আপনার ব্যবসার প্রচার করাতে চাইলে। সমাহার ডট নেট এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। যেখান থেকে আপনি আপনার ব্যবসার জন্য খুবই কম খরচে ডিজিটাল মার্কেটিং অথবা ট্রেডিশনাল মার্কেটিং করাতে পারবেন। এছাড়া ও সমস্ত প্রকার ডিজিটাল অথবা ট্রেডিশনাল সুবিধা নিতে পারবেন।

আপনি যদি আপনার ব্যবসাকে কি ভাবে অনলাইনে নিয়ে যাবেন বা ব্যবসাকে বড় করবেন অথাৎ ব্যবসার প্রসার ঘটাবেন তা জানতে চান তবে , সময় নষ্ট না করে এখুনি  রিসেলার, সেলার সেন্টারে সরাসরি যোগাযোগ করুন।  তার জন্য আপনাকে কোনো টাকা খরচ করতে হবে না। সম্পূর্ণ ফ্রীতে আপনি পরামর্শ পাবেন।

আশা করি এই পোস্টটি আপনাকে দরকারী কিছু তথ্য দিয়েছে। পরবর্তী পোস্ট পাওয়ার জন্য সাথেই থাকুন

Leave a Reply